kids time fair

The Largest Children Event in Bangladesh

শিশুদের নিয়ে মহা ধুমধামের মধ্য দিয়ে ২০ ও ২১ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হল Kids Time Fair 2023। শিশুদের ক্রিয়েটিভিটি নিয়ে কাজ করা বাংলাদেশের সব থেকে বড় আফটার স্কুল ব্র্যান্ডটির এবারের বিষয় ক্রিয়েটিভিটি। এবারের মেলাটি ছিল শিশুদের জন্য করা সব থেকে বড় আয়োজনের তৃতীয় উদযাপন।

Kids Time এর রেজিস্ট্রেশন পার্টনার হিসেবে ছিল ToguMogu, নিউট্রিশন পার্টনার ছিল Nutri+। এছাড়াও এন্টারটেইনমেন্ট পার্টনার হিসেবে Goofi World আর লার্ণিং পার্টনার Joy School English Bangladesh। এছাড়াও Cholpori, Guba Books, Wreetu অংশ নেয় এই মেলায়। সাথে ফেউস পেইন্টিং আর ক্যারিকেচার নিয়েে এসেছিল Babuland আর Cartoon People।

Kids Time - MG 4767 scaled
Kids Time Fair 2023

শিশুরা সবকিছু নিজ থেকে করতে চায়,হাতের কাছে যাই পাক তা ধরে দেখতে চায়। সহজ কথায় বলতে গেলে তারা সব কিছুই নিজ থেকে এক্সপিরিয়েন্স করতে চায়। তারা এভাবে তাদের  মাঝের ক্রিয়েটিভ সত্ত্বাকে develop করার সুযোগ পায়। কিন্তু সত্যি বলতে আমরা খুব কমই পারি শিশুদের creativity express করার জন্য সুন্দর একটা পরিবেশের সৃষ্টি করতে। এই পরিস্থিতির পরিবর্তনের জন্যই Kids Time বিভিন্ন ভাবে কাজ করে থাকে, বিভিন্ন আয়োজন নিয়ে শিশুদের নতুন নতুন experience দিতে কাজ করে থাকে।

কোভিডের জন্য ২ বছর বন্ধ থাকার পর Kids Time Fair 2023 আয়োজিত হল  ‘বাংলাদেশ শিশু একাডেমি’-তে বেলা ৯টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত শিশুদের সাথে। সব শিশুর জন্য উন্মুক্ত মেলাটিতে ছিল সারাদিন ব্যাপী সব অনুষ্ঠান- যার মধ্যে ছিল পাপেট শো, ম্যাজিক শো, স্টোরি টেলিং সেশনও।

Kids Time - MG 5497 scaled
Kids Time Fair 2023

শিশুদের জন্য Creative Zone যেখানে তারা তাদের মনের মত করে করেছে রঙ, একেঁছে ছবি, করেছে মজার মজার সব ক্র্যাফট। শিশুদের জন্য বিভিন্ন গেমস এরও ব্যাবস্থা ছিল ২ দিন ব্যাপী এই মেলায়। Nutri Plus শিশুদের আনন্দ দিতে তৈরী করে Nutrition World আর শক্তি+ ও শিশুদের জন্য গেমস-এর  আয়োজন করে । ToguMogu ও আয়োজন করে এক জাক জমকপূর্ণ র‍্যাফেল ড্র সেশনের যেখানে ২দিন মিলে মোট ৪০টি পুরষ্কার দেওয়া হয় মেলায় অংশগ্রহণকারী শিশুদের মাঝে।

শিশুরা মেলায় থেকে ডুডলিং, ক্র্যাফটিং, ছবি আঁকার মাধ্যমে ক্রিয়েটিভিটি নিয়ে জেনেছে, তাদের ক্রিয়েটিভ দিকটিকে এক্সপ্লোর করেছে। শিশুরা বড় হয়ে তারা কি হতে চায় তাও লিখেছেইচ্ছেটিভি-তে। অভিভাবকরা শিশুর ক্রিয়েটিভিটি নিয়ে কিভাবে কাজ করবেন, কিভাবে  শিশুর ক্রিয়েটিভিটি  ডেভেলপ করবেন তা নিয়ে জেনেছেন মেলায় অংশগ্রহণ করা ব্র্যান্ডগুলো থেকে। তারা জানতে পেরেছে শিশুর বিকাশে সহায়ক খাবার সম্বন্ধে, শিশুর নিউট্রিশন নিয়েও।

শিশুদের জন্য করা বাংলাদেশের সব থেকে বড় মেলাটিতে  অংশ নেয় ৩ থেকে ১২ বছর বয়সী প্রায় ১০,০০০ শিশু অংশ নেয় বাংলাদেশ শিশু একাডেমি- তে অনুষ্ঠিত মেলাটিতে। ঢাকার প্রায় ২০ টি স্কুল অংশ নেয় মেলাটিতে। যেহেতু এবারের মেলার বিষয়বস্তু ছিল ক্রিয়েটিভিটি, তাই শিশুদের এবং অভিভাবকদের কাছে সৃজনশীলতার বিষয়টি তুলে ধরাই ছিল Kids Time Fair এর মূল লক্ষ্য।