fbpx

Select Your Favourite
Category And Start Learning.

আপনার শিশুর English Speaking দক্ষতা কীভাবে বাড়াবেন?

How to develop English Speaking skill for kids?

একজন শিশু ৫ বছর বয়সের মধ্যে ৩ টি ভাষা শেখার ক্ষমতা আছে। অবাক করা ব্যাপার না? অনেকেই জানেন শিশুরা ইউটিউব দেখে দেখেই ইংরেজি বিভিন্ন শব্দ শিখে যায়। আবার হিন্দি কার্টুন দেখে কিছুটা হিন্দিও শিখে ফেলে। এগুলো আমরা প্রতিনিয়তই দেখি। কিন্তু এই ক্ষমতা ধীরে ধীরে বয়স বাড়ার সাথে সাথে কমে যায়। বিশেষ করে ১০ বছর বয়সের পর অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। এই জন্যই বড় হওয়ার পর ইংরেজি ভাষা বা অন্য যেকোনো নতুন ভাষা শেখা এতো কঠিন হয়ে পড়ে।

শিশুর English Speaking দক্ষতা এবং এর গুরুত্ব নিয়ে আজকের লেখা। এবং সবার শেষে একটা সল্যুশনের ব্যাপারেও বলা হয়েছে। তার আগে বাস্তব জীবনের উদারহণ থেকে জেনে নেই কেন English Speaking skill দরকার।

কেন ইংরেজিতে কথা বলা শেখা (English Speaking) দরকার?

যে কেউ চাকুরিক্ষেত্রে আছেন, তারা জানেন তাদের কর্মক্ষেত্রে ইংরেজি জানা কতটা গুরুত্ব বহন করে। আপনার চেয়েও খারাপ পারফর্মার কেবল ইংরেজিতে ভালো হওয়ার কারণেই প্রমোশন পেয়ে গেছে – এটাও হয়তো দেখতে হয়েছে। কেন ইংরেজিতে ভালো হতে হবে?

১। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের গবেষণায় দেখা গেছে, যে ইংরেজিতে পারদর্শী সে ব্যক্তির ভবিষ্যৎ উপার্জন ৩০-৫০% বাড়ে যে ইংরেজি পারে না তার তুলনায়।

২। পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতে পড়াশুনা করতে যাওয়া, চাকুরি করতে যাওয়া এবং স্থায়ীভাবে বসবাস করতে চাইলে ইংরেজিতে কথা বলতে পারার বিকল্প নেই।

৩। নিজের আইডিয়া, নিজের ব্যবসা, নিজের কাজ, নিজের দক্ষতাকে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য English Speaking এর বিকল্প নেই।

কেন ছোটবেলাতেই ইংরেজিতে কথা বলা শিখে নেয়া দরকার?

ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে যারা নিজেদের শিশুদের ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে দিতে পারেন না, তারা সবসময় একটা কষ্টে থাকেন যে তাদের শিশুদের ইংরেজিতে দক্ষতা বাড়ছে না। কেন তারা অল্প বয়সেই চান শিশুরা ইংরেজিতে কথা বলা শিখুক?

১। নতুন ভাষা শেখার জন্য সবচেয়ে উপযোগী বয়স হচ্ছে ১০ বছরের নিচে থাকা অবস্থায়। এই সময়ে শিশুদের জন্য নতুন ভাষা শেখা সবচেয়ে সহজ।

২। ছোটবেলাতেই ইংরেজি শিখে নিতে পারলে তার স্কুলে ও বাইরে সে আগে থেকেই ভাষার চর্চা শুরু করতে পারবে।

৩। ইংরেজিতে কথা বলা শেখা সবচেয়ে কঠিন, বিশেষ করে আমেরিকান বা ব্রিটিশদের মতো উচ্চারণে। কিন্তু শিশুর বয়স কম থাকলে এই ধরণের উচ্চারণগুলো তার জন্য শেখা সহজ। যত বড় হবে এবং মাতৃভাষার আঞ্চলিক টান চলে আসবে, ততই তার জন্য নেটিভ ইংরেজি উচ্চারণে কথা বলা কঠিন হয়।

কোথায় শিশুকে ইংরেজিতে কথা বলা শেখাবো? (Where to teach English Speaking for children)

আপনার শিশুর বয়স যদি ৬-১০ বছরের মধ্যে হয়ে থাকে তাহলে আপনি Joy School English এর কোর্সে শিশুকে ভর্তি করতে পারেন। Joy School English একটি আমেরিকান প্রতিষ্ঠান যারা পৃথিবীর ২৬ টি দেশে শিশুদের ইংরেজিতে কথা বলার দক্ষতা বাড়ায়। আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে তারা বাংলাদেশে কাজ শুরু করতে যাচ্ছে। নিচের ভিডিওটি দেখে নিন।

Joy School English Bangladesh Program

বাংলাদেশের জন্য Joy School English app এর পাশাপাশি প্রথমবারের মতো চালু হচ্ছে শিক্ষকদের কাছ থেকে সরাসরি অনলাইনে ইংরেজিতে কথা বলা শেখার সুযোগ। Joy School English এর প্রশিক্ষিত শিক্ষকরা অনলাইনে ক্লাস নিবেন শিশুদের। পাশাপাশি শিশুরা Joy School English app ব্যবহার করে বাসায় বাকি সময় প্র্যাকটিস করতে পারবে এবং নিজে নিজে শিখতে পারবে।

Joy School English Bangladesh এর প্রোগ্রাম সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কে গিয়ে Sign Up করে রাখুন। আপনাদের সাথে যোগাযোগ করা হবে।